add

ঢাকা, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

ফিলিস্তিনি প্রেসিডেন্টের চিঠির জবাব দিলেন প্রধানমন্ত্রী

সরোবর প্রতিবেদক 

 প্রকাশিত: এপ্রিল ০৪, ২০২৪, ১০:২৫ দুপুর  

গাজার কোনো অংশ পুনর্দখলের ইসরায়েলি পরিকল্পনা এবং গাজাবাসীকে তাদের নিজস্ব ভূখণ্ড থেকে বিতাড়িত করা এবং ইসরায়েলের পাশাপাশি ফিলিস্তিনিদের একটি পৃথক স্বাধীন রাষ্ট্রের অধিকার প্রত্যাখ্যান করার বিরুদ্ধে নিজের দৃঢ় অবস্থান পুনর্ব্যক্ত করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

ফিলিস্তিন রাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট মাহমুদ আব্বাসের কাছে পাঠানো এক চিঠিতে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমি এ সুযোগে ৮ অক্টোবর, ২০২৩ থেকে গাজা এবং পশ্চিম তীরে নিরবচ্ছিন্ন ইসরায়েলি গণহত্যায় শিশু, নারী ও পুরুষসহ নিরপরাধ মানুষের প্রাণহানির মর্মান্তিক ক্ষয়ক্ষতিতে ফিলিস্তিনের সরকার ও ভ্রাতৃপ্রতিম জনগণের প্রতি আন্তরিক সমবেদনা জানাচ্ছি।

তিনি আরো বলেন, আমি ১৯ মার্চ, ২০২৪ তারিখে আপনার দূত এবং ফাতাহ কেন্দ্রীয় কমিটির সাধারণ সম্পাদকের মাধ্যমে আমাকে লেখা চিঠির প্রাপ্তি স্বীকার করছি।

বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী একটি দীর্ঘমেয়াদি যুদ্ধবিরতির জন্য তার আহ্বান পুনর্ব্যক্ত করে বেসামরিক জীবন ও অবকাঠামো রক্ষায় সংশ্লিষ্ট সবাইকে সংযম প্রদর্শনের আহ্বান জানান। শেখ হাসিনা গাজার জন্য ইসরায়েলি প্রধানমন্ত্রীর ‘ডে আফটার’ যুদ্ধোত্তর পরিকল্পনা সম্পর্কে অবগত রয়েছেন উল্লেখ করে মাহমুদ আব্বাসের গভীর উদ্বেগকে সমর্থন করে বলেন, পরিকল্পনাটি ফিলিস্তিনি জনগণের অধিকারের অবমাননা এবং আন্তর্জাতিক আইন ও চুক্তির লঙ্ঘন।

তিনি বলেন, এটা হতাশাজনক যে পরিকল্পনাটি সংঘাত বন্ধে দীর্ঘস্থায়ী কোনো বাস্তব পথ প্রদান করতে ব্যর্থ হয়েছে। বরং এর উদ্দেশ্য হচ্ছে গাজায় ফিলিস্তিনিদের বৈধ জাতীয় আকাঙ্ক্ষাকে দমন করা এবং ভূমির ওপর ইসরায়েলি নিয়ন্ত্রণ স্থায়ী করা।

শেখ হাসিনা বলেন, এ প্রেক্ষাপটে আমরা আমাদের দৃঢ় অবস্থান পুনর্ব্যক্ত করছি যে আমরা গাজার যে কোনো অংশ পুনরুদ্ধার করার জন্য ইসরায়েলি পরিকল্পনার বিরুদ্ধে মৃত, গাজাবাসীদের তাদের নিজস্ব অঞ্চল থেকে বিতাড়িত করা হবে না, গাজা ভূখণ্ড ছোট করা হবে না, ইউএনআরডব্লিউএ-এর বাস্তবায়নের ক্ষমতার উপর কোনও সীমাবদ্ধতা নেই। ম্যান্ডেট, এবং ইসরায়েলের পাশাপাশি একটি পৃথক ও স্বাধীন রাষ্ট্রে ফিলিস্তিনিদের অধিকার প্রত্যাখ্যান করা হবে না।

তিনি বলেন, ন্যায়বিচার, শান্তি ও সম্প্রীতি বজায় রাখা ইসলাম এবং সব মহান ধর্মের মূল শিক্ষা। এটাকে আমরা সব দ্বন্দ্ব ও ভোগান্তি নিরসনে প্রতিষেধক বলে মনে করি।

দৈনিক সরোবর/বি কে