add

ঢাকা, সোমবার, ২২ জুলাই ২০২৪, ৭ শ্রাবণ ১৪৩১

নকল অ্যানেসথেশিয়ার ওষুধ উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক

 প্রকাশিত: জুন ১৫, ২০২৪, ০৮:০৫ রাত  

নিষিদ্ধ অ্যানেসথেশিয়ার ওষুধ হ্যালোথেন ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের সামনের একটি ফার্মেসি থেকে উদ্ধার করেছেন র‌্যাবের ভ্রাম্যমাণ আদালত। আজ শনিবার (১৫ জুন) ঔষধ প্রশাসন অধিদফতরের সম্মেলন কক্ষে সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা জানান ডা. সামন্ত লাল সেন।

জানা গেছে, ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালের সামনে ব্যাপারি ফার্মেসিতে অভিযান চালান র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট। অভিযানে নকল হ্যালোথেন বিক্রির সঙ্গে জড়িত একজনকে আটক করা হয়। তার তথ্যের ওপর ভিত্তি করে মিটফোর্ড এলাকায় এবং আজিজ সুপার মার্কেটের একটি ফার্মেসিতে অভিযান চালিয়ে বিপুল পরিমাণ এই ওষুধ উদ্ধার করা হয়। 

ডা. সামন্ত লাল সেন বলেন, ‘সোসাইটি অব অ্যানেসথেশিওলজিস্টের পরামর্শ অনুযায়ী আমরা সভা করে সংকট উত্তরণে একটা পরিপত্র জারি করেছি। এই হ্যালোথেন ব্যবহার করা যাবে না। এটা একদম নিষিদ্ধ। তারপরও এটি বাজারে বিক্রি হচ্ছে। যে বিক্রি করছে, সে যেমন দোষী, তেমনি যে চিকিৎসক এটি ব্যবহার করছেন, তিনিও দোষী।’ এ বিষয়ে তিনি বলেন, ‘এটি ব্যবহারে যাকে যেখানে পাবো, যেই হাসপাতালে পাবো, যেই চিকিৎসককে পাবো, তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবো। যেই ওষুধ নিষিদ্ধ, সেটি ব্যবহার করার এখতিয়ার বাংলাদেশের কোনও চিকিৎসকের নেই। আমি সবাইকে জানাতে চাই যে এই অভিযান আমি আরও চালাবো।’


উল্লেখ্য, অস্ত্রোপচারের আগে রোগীকে অজ্ঞান করতে ‘হ্যালোথেন’ নামের একটি এজেন্ট ব্যবহার করা হয়। সম্প্রতি অ্যানেসথেশিয়ার কারণে কয়েকজন রোগীর মৃত্যুর ঘটনা ঘটলে এই নকল ওষুধ ব্যবহারের বিষয়টি সামনে আসে। তখনই এটি নিষিদ্ধ করা হয়। গত ২৭ মার্চ স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় একটি নির্দেশনা জারি করে জানায়, সম্প্রতি বিভিন্ন হাসপাতালে রোগীদের অস্ত্রোপচারকালে অ্যানেসথেশিয়া দেওয়ার সময় বেশ কিছু মৃত্যুর ঘটনা ঘটেছে। এবার রোগীর মৃত্যু ও আকস্মিক জটিলতা প্রতিরোধ এবং অ্যানেসথেশিয়ায় ব্যবহৃত ওষুধের মান নিশ্চিত করার নির্দেশনা দিয়েছে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়।

দৈনিক সরোবর/কেএমএএ