add

ঢাকা, শনিবার, ১৩ এপ্রিল ২০২৪, ৩০ চৈত্র ১৪৩০

চতুর্থ দিন শেষে হারের দ্বারপ্রান্তে বাংলাদেশ

স্পোর্টস ডেস্ক    

 প্রকাশিত: এপ্রিল ০২, ২০২৪, ০৮:৩২ রাত  

তৃতীয় দিন শেষে বড় হারের শঙ্কায় ছিল বাংলাদেশ। আজ চতুর্থ দিনে সেই পথেই হাঁটছে বাংলাদেশের ব্যাটাররা। শ্রীলঙ্কার দেওয়া ৫১১ রানের বিশাল লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে আজও ব্যাটিং ব্যর্থতায় টাইগাররা। চতুর্থ দিন শেষে ৭ উইকেটে হারিয়ে ২৬৮ রান সংগ্রহ বাংলাদেশের। ফলে সিরিজে সমতা ফিরতে শেষ দিনে বাংলাদেশের প্রয়োজন ২৪৩ রান। অন্যদিকে সিরিজ নিজেদের করে নিয়ে শ্রীলঙ্কার প্রয়োজন ৪ উইকেট।

শ্রীলঙ্কার দেওয়া ৫১১ রানের লক্ষ্য ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো করলেও পরে ছন্দ পতন হয় টাইগাররা। দুই ওপেনার মাহমুদুল হাসান জয় ও জাকির হাসান মিলে গড়েন ৩৭ রানের জুটি। এরপরই জয়সুরিয়ার বলে বোল্ড হয়ে ফেরেন জয়। ৩২ বলে ২৪ রান করে সাজঘরে ফেরেন এই ডানহাতি এই ব্যাটার।

এরপর আরেক ওপেনার জাকিরও ফেরেন দ্রুতই। দলীয় ৫১ রানের মাথায় বিশ্ব ফার্নান্দোর বলে সিলভার হাতে ক্যাচ তুলে সাজঘরের পথ ধরে বাঁহাতি এই ব্যাটার। ৩৯ বল খেললেও ১৯ রানের বেশি করতে পারেননি তিনি। পরবর্তীতে অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত ও মুমিনুল হক মিলে ৪৩ রানে জুটি গড়েন। ব্যর্থতার ধারাবাহিকতা ধরে রেখে ব্যক্তিগত ২০ রানে ফেরেন শান্ত। এরপর সাকিবকে নিয়ে জুটি গড়ার চেষ্টা করেন মুমিনুল।

তবে এই জুটিও খুব একটা বড় হয়নি মুমিনুলের বিদায়ে। দলীয় ১৩২ রানের মাথায় ৫৬ বলে ৫০ রান করে ফেরেন বাঁহাতি এই ব্যাটার। পাঁচ উইকেট হারিয়ে বিপর্যয়ে পড়া বাংলাদেশকে টেনে নেওয়ার দায়িত্ব নেন সাকিব-লিটন। এই জুটিতে ৬১ রান যোগ হয়। এরপরই ছন্দপতন! মাত্র চার রানের ব্যবধানে ফেরেন সাকিব ও লিটন। সাকিব ৩৬ ও লিটন ৩৮ রান করেন।

এরপর মেহেদী হাসান মিরাজ ও শাহাদাত হোসেন দিপু মিলে দিনের বাকি সময়টা পার করার চেষ্টা করেন। কিন্তু এবারও ব্যর্থতার পরিচয় দেয় বাংলাদেশ। দলীয় ২৪৩ রানের মাথায় বিদায় নেন দিপু। সাজঘরে ফেরার আগে তার ব্যাট থেকে আসে ৩৪ বলে ১৫ রান। শেষ বিকালে তাইজুলকে সঙ্গে নিয়ে দিন শেষ করেন মিরাজ। তাইজুল ১৪ বলে ১০ ও মিরাজ ৪৯ বলে ৪৪ রানে অপরাজিত আছেন।

ফলে শেষ দিনে সিরিজে সমতায় ফিরতে বাংলাদেশের প্রয়োজন ২৪৩ রান। অন্যদিকে সিরিজ নিজেদের করে নিয়ে শ্রীলঙ্কার প্রয়োজন ৪ উইকেট।

দৈনিক সরোবর/বি কে