add

ঢাকা, শুক্রবার, ২৪ মে ২০২৪, ১০ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

ইসরায়েলে কারাবন্দী থেকে উপন্যাস লিখে ফিলিস্তিনি লেখকের পুরস্কার জয়

সরোবর ডেস্ক 

 প্রকাশিত: এপ্রিল ২৯, ২০২৪, ০৮:১২ রাত  

ইসরায়েলে কারাবন্দী সাহিত্যিক বাসেম খান্দাকজি আরব বিশ্বের কথাসাহিত্যের সম্মানজনক পুরস্কার ইন্টারন্যাশনাল প্রাইজ ফর অ্যারাবিক ফিকশন-২০২৪ জিতেছেন। কবিতা ও উপন্যাসসহ তাঁর মোট রচনার সংখ্যা ৬টি। তবে তিনি তাঁর উপন্যাস ‘আ মাস্ক, দ্য কালার অব দ্য স্কাই’ উপন্যাসের জন্য এই পুরস্কার জিতেছেন।

কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বাসেম খান্দাকজি ২০০৪ সাল থেকে ইসরায়েলি কারাগারে বন্দী। চলতি বছর ইন্টারন্যাশনাল প্রাইজ ফর অ্যারাবিক ফিকশনের জন্য খান্দাকজিকে মনোনীত করেছে। তবে তিনি কারাগারে বন্দী থাকায় তাঁর হয়ে পুরস্কার গ্রহণ করেছেন রানা ইদ্রিস।

রানা ইদ্রিস বাসেম খান্দাকজির বইগুলোর প্রকাশক। তিনি লেবাননের দার আল-আদাব প্রকাশনী সংস্থার প্রকাশক। রানা বাসেমের পক্ষ থেকে সংযুক্ত আরব আমিরাতের আবুধাবিতে এক অনুষ্ঠানে এই পুরস্কার গ্রহণ করেন। ‘আ মাস্ক, দ্য কালার অব দ্য স্কাই’ উপন্যাসটি ২০২৩ সালে প্রকাশিত হয়। 

আ মাস্ক উপন্যাসে বাসেম খান্দাকজি পশ্চিম তীরের রামাল্লায় অবস্থিত একটি ফিলিস্তিনি শরণার্থীশিবিরে বসবাসকারী প্রত্নতাত্ত্বিক নূরের গল্প বলেছেন। এই গল্পের নায়ক নূর একদিন পুরোনো একটি কোটের পকেটে নীল রঙা পরিচয়পত্র পেয়ে যান এবং নিজের পরিচয়ের আড়ালে আরও একটি পরিচয় তিনি ধারণ করেন। মূলত তিনি একটি ‘মুখোশ’ ধারণ করেন তাঁর দ্বিতীয় চরিত্রে। 

অধিকৃত ফিলিস্তিনি ভূখণ্ড পশ্চিম তীরের নাবলুসে ১৯৮৩ সালে জন্মগ্রহণ করেন খান্দাকজি। তিনি ২০০৪ সালে মাত্র ২১ বছর বয়সে ইসরায়েলের কারাগারে বন্দী হন। তবে কারাগারে তিনি অলস বসে থাকেননি। তিনি আল-কুদস বিশ্ববিদ্যালয় থেকে রাষ্ট্রবিজ্ঞানের ওপর উচ্চতর ডিগ্রি নিয়েছেন এবং ‘ইসরায়েল স্টাডিজের’ ওপর একটি থিসিসও করেছেন। এ ছাড়া কয়েকটি কবিতা সংকলন ও উপন্যাস প্রকাশ করেছেন। 

খান্দাকজি ২০২১ সালে এই বইটি লেখা শুরু করেন এবং সে বছরই শেষ করেন। চলতি বছরের জানুয়ারিতে এক সাক্ষাৎকারে খান্দাকজির ভাই জানান, তাঁর পরিবার চার মাস ধরে খান্দাকজির সঙ্গে কথা বলতে পারেননি। ২০২৩ সালের অক্টোবর থেকে ইসরায়েলি কারাগারে বন্দী অনেক ফিলিস্তিনি এই সমস্যার সম্মুখীন হয়েছে।

দৈনিক সরোবর/এএস