ঢাকা, শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২০ মাঘ ১৪২৯

সড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ, ৪ দফা দাবি শিক্ষার্থীদের

সরোবর প্রতিবেদক

 প্রকাশিত: জানুয়ারী ২৩, ২০২৩, ০১:৫২ দুপুর  

বাসচাপায় নর্দার্ন ইউনিভার্সিটির শিক্ষার্থী নাদিয়ার নিহতের ঘটনায় বিচারের দাবিতে রাজধানীর প্রগতি সরণিতে দ্বিতীয় দিনের মতো সড়ক অবরোধ করে কর্মসূচি পালন করছেন শিক্ষার্থীরা। এসময় আন্দোলনরতরা ৪ দফা দাবি তুলে ধরেছেন। 

সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে শিক্ষার্থীরা রাজধানীর বিমানবন্দর সড়কের কাওলা ব্রিজের নিচে অবস্থান নিয়ে অবরোধ শুরু করেন।

শিক্ষার্থীদের রাস্তা অবরোধের কারণে খিলক্ষেত থেকে উত্তরাগামী সড়কের যান চলাচল সম্পূর্ণ বন্ধ রয়েছে। নাদিয়ার ক্ষতিপূরণ ও বিচারের দাবিতে এ কর্মসূচি পালন করছেন তারা। 

বিষয়টি নিশ্চিত করে বিমানবন্দর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আজিজুল হক বলেন, শিক্ষার্থীরা সড়ক অবরোধ করেছে। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পর্যাপ্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েছে।

আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা চার দফা দাবি তুলে ধরেছেন, সেগুলো হলো- 
১. ভিক্টর ক্লাসিক বাসের রুট পারমিট বাতিল করতে হবে।
২. নাদিয়ার পরিবারকে ক্ষতিপূরণ দিতে হবে।
৩. চালক ও হেলপারের গ্রেপ্তারের বিষয়ে পর্যাপ্ত প্রমাণ দিতে হবে। 
৪. কাওলা এলাকায় একটি বাস স্টপেজ করতে হবে।

আন্দোলনরত নর্দার্ন ইউনিভার্সিটির এক শিক্ষার্থী বলেন, আমাদের বোন মারা গেছে, একজন শিক্ষার্থী মারা গেছে। কিন্তু এ বিষয়ে কারও কোনো দায়িত্ব নেই? আমাদের ৪ দফা দাবি না মানা পর্যন্ত রাস্তা ছাড়ব না।

দুপুর ১টার দিকে দেখা যায় দূরপাল্লার বাসগুলোর জন্য আলাদা একটি লেন করে সেগুলো ছেড়ে দেওয়া হচ্ছে। এছাড়া ব্যক্তিগত যানবাহন ও জরুরি সেবার বিভিন্ন গাড়িকেও যেতে দিচ্ছেন তারা।

গত রবিবার দুপুর পৌনে ১টায় প্রগতি সরনিতে ভিক্টর পরিবহনের একটি বাসের চাপায় নিহত হন নাদিয়া। সোমবার সকালে রাজধানীর বাড্ডার আনন্দনগর থেকে ঘাতক বাসের চালক লিটন ও সহকারী আবুল খায়েরকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ঘাতক বাসটিও জব্দ করা হয়েছে।

দৈনিক সরোবর/ আরএস