add

ঢাকা, শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে প্রেমিকাকে আত্মহত্যার প্ররোচনার অভিযোগ

রাজবাড়ী প্রতিনিধি

 প্রকাশিত: মে ২০, ২০২৪, ১১:৪৪ দুপুর  

রাজবাড়ীতে প্রেমিকাকে আত্মহত্যার প্ররোচনা দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে এক ছাত্রলীগ নেতার বিরুদ্ধে। এছাড়া প্রেমিকার অশ্লীল ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখিয়ে একাধিকবার শারীরিক সম্পর্কের অভিযোগ উঠেছে।

অভিযুক্ত দেবজ্যোতি নাগ (২৪) রাজবাড়ী সরকারি কলেজ শাখা ছাত্রলীগের বর্তমান কমিটি সাধারণ সম্পাদক ও শহরের ভাজনচালা এলাকার দুলাল নাগের ছেলে। রবিবার (১৯ মে) দুপুরে রাজবাড়ী সদর থানায় লিখিত অভিযোগ করেন ভুক্তভোগী কলেজছাত্রীর বাবা।

ভুক্তভোগী ওই কলেজছাত্রীর বাবা বলেছেন, রাজবাড়ী সরকারি কলেজে পড়ার সুবাদে দেবজ্যোতি নাগের সঙ্গে দুই বছর আগে আমার মেয়ের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। এ সম্পর্কের জেরে আমার মেয়ের সরলতার সুযোগ নিয়ে বিভিন্ন সময় সে আমার মেয়ের সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক স্থাপন করে এবং কৌশলে নিজের মোবাইলে আমার মেয়ের অশ্লীল ছবি ও ভিডিও ধারণ করে রাখে। পরবর্তী সময়ে সে আমার মেয়েকে ছবি ও ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দেওয়ার ভয় দেখায়। আমার মেয়ে তাকে বিয়ে করার কথা বললে সে আজ কালক্ষেপণ করতে থাকে। পরে গত ২৫ জানুয়ারি দেবজ্যোতি ভারত চলে যায়। আমার মেয়ে তার বাড়িতে গেলে তার পরিবারের লোকজন আমার মেয়েকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে তাড়িয়ে দেয়। তাড়িয়ে দেওয়ার সময় তারা আমার মেয়েকে দেবজ্যোতিকে ভুলে যেতে বলে, নাহলে গলায় দড়ি দিয়ে আত্মহত্যা করতে বলে।

মার মেয়ে কেন তার বাড়িতে গেল- এ অপরাধে দেবজ্যোতি গত ৪ ফেব্রুয়ারি ভারত থেকে আমার মেয়েকে ফোন করে গালিগালাজ করে এবং আবারো ছবি ও ভিডিও ছড়িয়ে দেওয়ার হুমকি দেয়। পরে সে আবারো আমার মেয়েকে ফোন করে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ করে ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দিয়ে আত্মহত্যা করতে বলে। আমার মেয়ে তার কথায় হতাশাগ্রস্ত হয়ে রাজবাড়ী থেকে ট্রেনে উঠে ঢাকার কমলাপুর স্টেশনে গিয়ে গত ৫ ফেব্রুয়ারি ভোর সাড়ে ৫টার দিকে ট্রেনের নিচে ঝাঁপ দেয়। এতে তার দুই হাত শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যায়। এ সময় সেখানকার জিআরপি পুলিশ আমার মেয়েকে উদ্ধার করে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে ভর্তি করেন। সেখানে দীর্ঘ এক মাস আমার মেয়ে চিকিৎসাধীন ছিল।

তিনি আরো বলেছেন, মেয়ের চিকিৎসার ব্যস্ততা শেষে আমি এ বিষয়ে মামলা করতে চাইলে দেবজ্যোতি নাগ আমাকে মামলা না করার জন্য বিভিন্নভাবে হুমকি-ধামকি দেয়। এখন পর্যন্ত সে আমাকে হুমকি দিয়েই যাচ্ছে। তারপরও আমি আমার আত্মীয়স্বজনদের সঙ্গে আলোচনা করে তার বিরুদ্ধে থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছি। আশা করি আমি ও আমার মেয়ে ন্যায় বিচার পাব।

এ বিষয়ে জানার জন্য অভিযুক্ত দেবজ্যোতি নাগের ফোন নম্বরে একাধিকবার কল করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি।

এ বিষয়ে রাজবাড়ী জেলা ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক জাহিদুল ইসলাম জাহিদ বলেছেন, কলেজ ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক দেবজ্যোতি নাগের বিরুদ্ধে আমরা একটা অভিযোগ পেয়েছি। আমরা বিষয়টি তদন্ত করে দেখছি। যদি সে এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত থাকে তাহলে তার বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

দৈনিক সরোবর/এএল