ঢাকা, শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২০ মাঘ ১৪২৯

হত্যার ২৬ বছর পর মামলার সব আসামি খালাস

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি

 প্রকাশিত: নভেম্বর ২৫, ২০২২, ০৫:৪৩ বিকাল  

প্রতীকী ছবি

চট্টগ্রাম নগরের আন্দরকিল্লায় ছাত্রলীগ নেতা মাহমুদুল আলম হত্যা মামলায় সব আসামিকে খালাস দিয়েছেন আদালত। বৃহস্পতিবার (২৪ নভেম্বর) চট্টগ্রামের অতিরিক্ত মহানগর দায়রা জজ নার্গিস আক্তার এ রায় ঘোষণা করেন।
 
রায়ে খালাসপ্রাপ্ত আসামিরা হলেন- মো. আব্দুল কুদ্দুস, মো. মামুন, মো. নুরুল আলম, মোসাফেক, মো. আব্দুল মতিন, রানা ও আলমগীর। তারা সবাই তৎকালীন ছাত্রদল ও যুবদলের নেতা-কর্মী।

নগর পুলিশের তালিকাভুক্ত সন্ত্রাসী নুরুল আলম ‘এতিম আলম’ নামে পরিচিত। নুরুল আলম, মোসাফেক ও মতিন পলাতক বলে রায়ে উল্লেখ করা হয়েছে। অন্য চারজন আদালতে হাজির ছিলেন।

আদালত সূত্র জানায়, বিএনপি সরকারের আমলে ১৯৯৬ সালের ৪ মার্চ লোহাগাড়ার বাসিন্দা ও ছাত্রলীগ নেতা মাহমুদুল আলমকে নগরীর আন্দরকিল্লা এলাকায় কাটা রাইফেলসহ অস্ত্রের আঘাতে হত্যা করা হয়। এ ঘটনায় মাহমুদুল আলমের ছোট ভাই বাদী হয়ে কোতোয়ালী থানায় হত্যা মামলা দায়ের করেন। পরবর্তীতে সাত আসামির বিরুদ্ধে তদন্ত কর্মকর্তা আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন। এরই ধারাবাহিকতায় ২০০৫ সালের ১০ আগস্ট আদালত আসামিদের বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করে বিচার শুরু করেন।

সংশ্লিষ্ট আদালতের বেঞ্চ সহকারী ফরিদ উদ্দিন বলেন, ‘হত্যাকাণ্ডের পর মরদেহের সুরতহাল প্রতিবেদন তৈরি করা হয়েছিল। তবে ২৬ বছর পর এ সংক্রান্ত কোনও সাক্ষীকে আদালতে হাজির করা যায়নি। পুলিশ আলামত হিসেবে মৃতের কাপড়ও জব্দ করেনি। পর্যাপ্ত সাক্ষ্যপ্রমাণ এবং আলামত না পাওয়ায় আদালত আসামিদের খালাস দিয়েছেন’।

রাষ্ট্রপক্ষের কৌঁসুলি উত্তম কুমার দত্ত বলেন, ২৬ বছর আগের এই হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় সাক্ষীদের মধ্যে ৮ জন সাক্ষ্য দিয়েছিলেন। অভিযোগ প্রমাণিত না হওয়ায় সব আসামিকে বিচারক খালাস দিয়েছেন। আদেশের বিরুদ্ধে আপিল করার সুযোগ রয়েছে বাদিপক্ষের।

দৈনিক সরোবর/আরএস