ঢাকা, শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২০ মাঘ ১৪২৯

নিয়োগ পরীক্ষার আবেদন ফি কমাল মতিঝিল আইডিয়াল

সরোবর প্রতিবেদক

 প্রকাশিত: অক্টোবর ১২, ২০২২, ০৭:১৮ বিকাল  

শিক্ষক ও কর্মকর্তা-কর্মচারী নিয়োগের ক্ষেত্রে সব পদে আবেদন ফি কমিয়েছে রাজধানীর মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ। নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের পর  ফি দেখে চক্ষু চড়কগাছে। পরবর্তীতে বিবেচনার পর বুধবার ফি কমাল শিক্ষা প্রতিষ্ঠানটি।

৪ অক্টোবর স্কুল ও কলেজ শাখার ওয়েবসাইটের পাশাপাশি দুটি জাতীয় দৈনিকে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেয় আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ কর্তৃপক্ষ। সেখানে ১৪ ধরনের পদের উল্লেখ ছিল। এসব পদের জন্য সর্বোচ্চ পাঁচ হাজার টাকা আবেদন ফি চাওয়া হয়েছিল।

বুধবার সব পদের জন্য আবেদন ফি পুনরায় নির্ধারণ করে একটি বিজ্ঞপ্তি দিয়েছে প্রতিষ্ঠানটি। কোনো আবেদনকারী যদি আগের নির্ধারিত ফি অনুসারে ফি জমা দিয়ে থাকেন, তবে তাদের টাকা ফেরত দেওয়া হবে বলে বিজ্ঞপ্তিতে উল্লেখ করা হয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, সহকারী প্রধান শিক্ষক পদে আবেদন ফি পাঁচ হাজার টাকা থেকে কমিয়ে ৩ হাজার ৫০০ টাকা করা হয়েছে। নবম গ্রেডের প্রভাষক ও সহকারী প্রোগ্রামার পদে আবেদন ফি তিন হাজার টাকা থেকে কমিয়ে দুই হাজার টাকা করা হয়েছে।

এ ছাড়া ১০ম গ্রেডের প্রদর্শক পদে আবেদন ফি দুই হাজার টাকা থেকে কমিয়ে ১ হাজার ৫০০ টাকা, ১১তম গ্রেডের বাংলা ও ইংরেজি মাধ্যমের বিভিন্ন বিষয়ের সহকারী শিক্ষক ও নার্স পদে আবেদন ফি এক হাজার ৫০০ টাকা থেকে কমিয়ে এক হাজার টাকা করা হয়েছে।

১৬তম গ্রেডের অফিস সহকারী কাম কম্পিউটার অপারেটর পদে এক হাজার ২০০ টাকা থেকে কমিয়ে ৮০০ টাকা করা হয়েছে। ১৮, ১৯ ও ২০তম গ্রেডের ল্যাব সহকারী, প্লাম্বার ও চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী পদে আবেদন ফি এক হাজার টাকা থেকে কমিয়ে ৭০০ টাকা করা হয়েছে।

আবেদনের ফি বাবদ নির্ধারিত অর্থ গ্রহণের যৌক্তিকতা জানিয়ে বিজ্ঞপ্তিতে ব্যাখ্যা দিয়ে প্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, প্রতিষ্ঠানের নিয়োগ কার্যক্রমের জন্য কমপক্ষে দুটি জাতীয় পত্রিকায় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করতে হয়, এতে প্রতিষ্ঠানের খরচ হয়।

এ ছাড়া নিয়োগ প্রক্রিয়া সুষ্ঠু ও স্বচ্ছতার সঙ্গে করার জন্য বিভিন্ন কমিটি বা উপ-কমিটি করতে হয়। সেসব কমিটিতে মাউশির প্রতিনিধি ও বিষয়ভিত্তিক বিশেষজ্ঞ এবং উচ্চ-পদমর্যাদার ব্যক্তিরা থাকেন।

প্রশ্নপত্র প্রণয়ন, উত্তরপত্র মূল্যায়ন, কোডিং, ডিকোডিং, কক্ষ পরিদর্শক, নিরীক্ষণ, ফলাফল প্রস্তুতসহ সব কার্যক্রমে পর্যাপ্ত জনবল নিয়োজিত থাকেন। যাদের প্রত্যেককে যৌক্তিক হারে সম্মানী ও আপ্যায়ন করাতে হয়।

এ ছাড়া পরীক্ষা নেওয়ার দিন শৃঙ্খলা রক্ষায় আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য, বিএনসিসি, স্কাউট, রেডক্রিসেন্ট ও গার্লস গাইডের সদস্যরা থাকেন। পরীক্ষার দিন প্রশ্নপত্র প্রণয়ন, পরীক্ষা গ্রহণ, উত্তরপত্র মূল্যায়ন, নিরীক্ষণ, ফল প্রস্তুতসহ যাবতীয় কার্যক্রম সম্পাদন করা হয়, তাই সবার জন্য আপ্যায়নের ব্যবস্থাও রাখতে হয়।

বিজ্ঞপ্তিতে আরো বলা হয়, এর আগে সহকারী প্রধান শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষায় প্রার্থীর সংখ্যা ছিল কম এবং তাদের কাছ থেকে আবেদন ফি বাবদ নেওয়া অর্থের চেয়ে নিয়োগ প্রক্রিয়ার ব্যয় বেশি ছিল, যা প্রতিষ্ঠান থেকে ভর্তুকি দেওয়া হয়েছে। এভাবে ভর্তুকি দিতে হলে তা শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে আদায়কৃত টিউশন ফির ওপর চাপ পড়ে। তাই বিভিন্ন পদে নিয়োগ প্রত্যাশীদের কাছ থেকে আবেদন ফি আদায়ের পরিমাণ বৃদ্ধির বিষয়ে গভর্নিং বডির মিটিংয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়।

এর পরিপ্রেক্ষিতে নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেওয়া হলে কিছু প্রার্থী আবেদন ফির বিষয়ে তাদের মতামত ব্যক্ত করলে বিভিন্ন জাতীয় দৈনিকে তা প্রকাশিত হয়। প্রকাশিত সংবাদ কর্তৃপক্ষের দৃষ্টিগোচর হয়েছে। এমতাবস্থায় বিষয়ের গুরুত্ব ও যৌক্তিকতা বিশ্লেষণ করে কর্তৃপক্ষ আবেদন ফি যৌক্তিক হারে কমিয়ে তা পুনরায় নির্ধারণ করেছে।

মতিঝিল আইডিয়ালে ১৪ ধরনের পদে ৫ অক্টোবর থেকে আবেদন শুরু হয়েছে, আবেদন চলবে ২০ অক্টোবর বিকেল ৫টা পর্যন্ত। নিজ হাতে লিখিত আবেদনপত্রের সঙ্গে প্রতিটি পদের জন্য আবেদন ফি পে-অর্ডার/ ব্যাংক ড্রাফটের মাধ্যমে পাঠাতে বলা হয়েছে, যা অফেরতযোগ্য।

কোনো প্রতিষ্ঠান যেন খেয়াল-খুশিমতো আবেদন ফি নিতে না পারে, সে জন্য গত সেপ্টেম্বরে সরকারি সব চাকরির আবেদন ফি পুনরায় নির্ধারণ করে প্রজ্ঞাপন জারি করে অর্থ মন্ত্রণালয়। প্রজ্ঞাপনে বলা হয়েছে, নবম গ্রেড বা এর বেশি গ্রেডভুক্ত পদে আবেদন ফি ৬০০ টাকা, ১০ম গ্রেডের পদে আবেদন ফি ৫০০ টাকা, ১১ থেকে ১২তম গ্রেডের জন্য ৩০০ টাকা, ১৩ থেকে ১৬তম গ্রেডের জন্য ২০০ টাকা এবং ১৭ থেকে ২০তম গ্রেডের জন্য ১০০ টাকা।

দৈনিক সরোবর/আরএস