add

ঢাকা, বুধবার, ২২ মে ২০২৪, ৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

শিল্পী সমিতির নির্বাচনে হেলেনা জাহাঙ্গীর, শিল্পীদের নিন্দা

বিনোদন ডেস্ক

 প্রকাশিত: এপ্রিল ০৪, ২০২৪, ০৪:০৯ দুপুর  

ছবি: ইন্টারনেট

বহুল সমালোচিত একটি নাম হেলেনা জাহাঙ্গীর। প্রতারণা ও চাঁদাবাজির অভিযোগে ২০২১ সালের ২৯ জুলাই গ্রেপ্তার করেছিল র‍্যাব। দণ্ডবিধির ৪২০ ও ৩৪ ধারায় দোষী সাব্যস্ত করে তাকে দুই বছর কারাদণ্ড ও ২ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। তবে আসন্ন চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ২০২৪-২৬ মেয়াদের নির্বাচনে কার্যনির্বাহী সদস্য পদে নির্বাচন করছেন তিনি।

নেট দুনিয়ায় তাকে নিয়ে কম চর্চা হয়নি। বেশ কয়েক মাস কারাভোগ করে জামিনে মুক্তি পান তিনি। জেল থেকে বেরিয়ে একটি সিনেমায় অতিথি চরিত্রে অভিনয় করেন হেলেনা জাহাঙ্গীর। যদিও সিনেমাটি সুপারফ্লপ, তা নিয়েও কম সমালোচনা হয়নি। এরপর তিনি আর কোনো সিনেমায় অভিনয় করেছেন কিনা জানা যায়নি।

ছিলেন সব ধরনের আলোচনার বাহিরে। হঠাৎ করেই নতুন করে আলোচনায় হেলেনা জাহাঙ্গীর। আসন্ন চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ২০২৪-২৬ মেয়াদের নির্বাচনে কার্যনির্বাহী সদস্য পদে নির্বাচন করছেন তিনি। প্রকাশিত প্রাথমিক প্রার্থী তালিকায় তার নাম দেখা যায়। এরপর থেকে আলোচনায় তিনি। প্রশ্ন উঠেছে, কবে শিল্পী সমিতির সদস্য হয়েছেন বিতর্কিত এই হেলেনা জাহাঙ্গীর।

সমিতির গঠনতন্ত্রের ৫ (ক) ধারা অনুযায়ী—বাংলাদেশে মুক্তিপ্রাপ্ত ন্যূনতম পাঁচটি পূর্ণদৈর্ঘ্য চলচ্চিত্রে অবিতর্কিত গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করিলে তিনি পূর্ণ সদস্য পদের জন্য আবেদন করিতে পারিবেন। কার্যকরী পরিষদে তার আবেদন গৃহীত হইলে তিনি পূর্ণ সদস্য পদ লাভ করিবেন এবং তিনি ভোটাধিকার সহ কার্যকরী পরিষদের যে কোন পদের জন্য যোগ্যবলিয়া বিবেচিত হইবেন। পূর্ণ সদস্য পদের জন্য আবেদনকারীকে পেশাগতভাবে অবশ্যই চলচ্চিত্র অভিনয়শিল্পী হইতে হইবে।

কিন্তু এ ক্ষেত্রে তার ব্যতয় ঘটেছে। ‘ভাইয়ারে’ নামের একটি বিতর্কিত সিনেমায় অতিথি চরিত্রে অভিনয় করেন হেলেনা জাহাঙ্গীর। আর এক সিনেমায় অভিনয় করেই তিনি শিল্পী সমিতির সদস্য হয়েছেন। সদস্য হয়েই অংশ নিচ্ছেন নির্বাচনে।

এ প্রসঙ্গে জানতে শিল্পী সমিতির ২০২২-২৪ মেয়াদের কমিটির সাংগঠনিক সম্পাদক শাহনূরের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে সংবাদমাধ্যমকে তিনি বলেন, হেলেনা জাহাঙ্গীর কবে শিল্পী সমিতির সদস্য হয়েছেন আমি বা আমরা জানি না। নতুন সদস্য নেওয়ার জন্য আমাদের কমিটির কোনো মিটিং হয়নি। শুনছি ৪০ থেকে ৪৫ জন নতুন সদস্য নিয়েছে। কিভাবে নিয়েছে তা আমরা অবগত নই। নিপুণ একক সিদ্ধান্তে তাদের নিয়েছে। এ ব্যাপারে কমিটি কিছুই জানে না।

যোগ করে তিনি আরো বলেন, অনেকে সিনেমা করেনি কিন্তু তারাও সদস্য হয়েছেন। এটা তো ক্লাব না যে, টাকা দিলেই সদস্য হওয়া যাবে। আমার জানামতে এ ব্যাপারে ইলিয়াস কাঞ্চন ভাইও কিছু জানেন না। অথচ যারা মূল শিল্পী তাদের সদস্য পদ বাতিল করা হয়েছে। শিশুশিল্পী থেকে অভিনয়ে আছেন তাদের ভোটাধিকার বাতিল করা হয়েছে। এখনই এমন করতেছে ভবিষ্যতে কি করবে বোঝাই যায়।

এ প্রসঙ্গে জানতে বর্তমান কমিটির সভাপতি ইলিয়াস কাঞ্চন ও সাধারণ সম্পাদক (মামলা চলমান) নিপুণ আক্তারকে বেশ কয়েকবার মোবাইলে কল করা হলেও নম্বরগুলো বন্ধ পাওয়া গেছে।

আসন্ন নির্বাচনে প্রার্থী তালিকায় হেলেনা জাহাঙ্গীরের নাম দেখে অবাক সাধারণ শিল্পীরা। এ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে বেশ কয়েকজন শিল্পী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে নিজেদের প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন।

এ প্রসঙ্গে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বেশ কয়েকজন জ্যেষ্ঠ ও এ প্রজন্মের শিল্পী বলেন, দিনদিন শিল্পী সমিতিতে এসব কি হচ্ছে। যাকে তাকে সদস্য করা হচ্ছে। শুধু মাত্র পেশাদার অভিনয়শিল্পী তারাই সমিতির সদস্য হতে পারবেন। সেটিও গঠনতন্ত্র মেনে। হেলেনা জাহাঙ্গীর কি পেশাদার অভিনেত্রী? এ ধরনের কর্মকাণ্ডের জন্য নিন্দা জানাই। বর্তমানে সমিতিতে যা হচ্ছে সত্যি খুবই দুঃখজনক। সাধারণ শিল্পীদের সচেতন হওয়ার আহ্বান জানাই।

দৈনিক সরোবর/এনএ