add

ঢাকা, শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১

ডলার দর: ক্রলিং পেগেই সায় আইএমএফের

সরোবর প্রতিবেদক 

 প্রকাশিত: এপ্রিল ২৬, ২০২৪, ০৩:৩৯ দুপুর  

ডলারের টালমাটাল অবস্থা ঠেকাতে অবশেষে ক্রলিং পেগ পদ্ধতি চালু করতে যাচ্ছে বাংলাদেশ ব্যাংক। মন্দের ভালো হিসেবে আপাতত এটাকে ইতিবাচক হিসেবে দেখছে আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিল (আইএমএফ)। তবে সেটা বাস্তবায়নের দায়িত্ব গভর্নরের ওপর ছেড়ে দেয় সংস্থাটি।

বৃহস্পতিবার (২৫ এপ্রিল) এ বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের সঙ্গে আইএমএফের বৈঠকে বিশদ আলোচনা হয়।

বৈঠক সূত্র জানায়, ক্রলিং পেগ চালুর বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের কর্মকর্তারা ও সফররত আইএমএফের প্রতিনিধিদলের সদস্যরা নানা পর্যালোচনা ও যুক্তি উপস্থাপন করেন। পরিশেষে তাঁরা প্রাথমিকভাবে চালুর জন্য গভর্নরের ওপর দায়িত্বভার ছেড়ে দেন। সবকিছু ঠিক থাকলে গভর্নর সরকারের সর্বোচ্চ মহলে আলোচনা করে আগামী অর্থবছর থেকে ক্রলিং পেগ বাস্তবায়নের উদ্যোগ নেবেন।

বাংলাদেশ ব্যাংকের একজন সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তা জানান, ডলার বাজার নিয়ন্ত্রণে কার্যত কোনো উপায় না পেয়ে মন্দের ভালো হিসেবে ক্রলিং পেগের ওপর নির্ভর করা হচ্ছে। এটি পরীক্ষামূলকভাবে চালুর পর বিভিন্ন দেশের মডেল কীভাবে ক্রলিং পেগকে নিয়ন্ত্রণ করত, সেগুলো বিষয় পর্যবেক্ষণ করা হবে। বিষয়টি স্থায়ীভাবে চালু থাকবে কি থাকবে না, তা নির্ভর করবে ডলারের বাজার পরিস্থিতি মূল্যায়নের ওপর।

এ বিষয়ে পলিসি রিসার্চ ইনস্টিটিউটের নির্বাহী পরিচালক ও আইএমএফের সাবেক কর্মকর্তা ড. আহসান এইচ মনসুর বলেন, ডলার সংকট এখনো রয়ে গেছে। এর পেছনে বড় কারণ হলো ডলারের রেট বাজারভিত্তিক না করা বা বাংলাদেশ ব্যাংকের ব্যর্থতা। এমন পরিস্থিতিতে অনেক পুরাতন মডেল হলো ক্রলিং পেগ পদ্ধতি সাময়িক সমাধান হতে পারে। তবে এটি কোনো টেকসই বা স্থায়ী সমাধান নয়। বাংলাদেশ ব্যাংক গায়ের জোরে ডলারের দাম নির্ধারণ করলেও একটা পর্যায়ে বাজারের ওপরই ছেড়ে দিতে হবে।

এর আগে বুধবার (২৪ এপ্রিল) বাংলাদেশ ব্যাংকের সঙ্গে সফররত আইএমএফ প্রতিনিধিদলের প্রথম দিনের বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়। উচ্চ মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণে সংক্রোচনমূলক মুদ্রানীতির মাধ্যমে সুদের হার বৃদ্ধিসহ গৃহীত পদক্ষেপের তথ্য সংগ্রহ করেছে সংস্থাটি। একই সঙ্গে রিজার্ভ পরিস্থিতি, ডলারের বিদ্যমান রেট, আন্তর্জাতিক বাণিজ্যিক লেনদেন বিষয়ে হালনাগাদ পরিস্থিতি পর্যবেক্ষণ জানতে চেয়েছে।

দৈনিক সরোবর/বি কে