ঢাকা, শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২০ মাঘ ১৪২৯

ওসি নাজিম উদ্দিনের নামে বিচার গেল প্রধানমন্ত্রীর কাছে

চট্টগ্রাম প্রতিনিধি

 প্রকাশিত: জানুয়ারী ২৩, ২০২৩, ০৮:৫৬ রাত  

চট্টগ্রাম নগরের পাঁচলাইশ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা  নাজিম উদ্দিনের করা নির্যাতনের প্রতিকার চেয়ে এবং মিথ্যা মামলা প্রত্যাহারে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে আবেদন করেছেন ভুক্তভোগী সৈয়দ মো. মুনতাকিম ওরফে মোস্তাকিম।

সোমবার  দুপুরে রেজিস্ট্রি ডাকযোগে এবং ই-মেইলের মাধ্যমে মোস্তাকিম স্বাক্ষরিত আবেদনপত্রটি পাঠানো হয়। একই আবেদনপত্র স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, স্বরাষ্ট্র সচিব, পুলিশ মহাপরিদর্শক (আইজিপি), জাতীয় মানবাধিকার কমিশন ও চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ (সিএমপি) কমিশনার বরাবরও পাঠানো হয়েছে।

বিষয়টি  নিশ্চিত করেছেন পুলিশি নির্যাতনের শিকার মোস্তাকিম। তিনি বলেন, আমি আমার মাকে বাঁচাতে কিডনি ডায়ালাইসিসের ফি কমানোর দাবিতে আন্দোলন করেছি। আমি কোনো সন্ত্রাসী বা গুন্ডা নই। অথচ পাঁচলাইশ থানার ওসি নাজিম উদ্দিন আমাকে বিনা কারণে ঘটনাস্থলেও মেরেছে, পরে থানায় নিয়েও মেরেছে। মিথ্যা মামলা দিয়ে আমাকে জেলে পাঠিয়েছে। এতে আমার সম্মান ক্ষুণ্ন হয়েছে। আমি তার বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রীসহ সরকারের পদস্থ কর্মকর্তাদের কাছে বিচার দিয়েছি। আশা করি প্রধানমন্ত্রী তার বিচার করবেন।

পাঁচলাইশ থানার ওসি নাজিম উদ্দিন বলেন, উনি আবেদন করুক। আমি কী করব? এ ক্ষেত্রে আমার তো করার কিছু নেই।

জানা গেছে, ডায়ালাইসিস ফি বৃদ্ধির প্রতিবাদে চলতি মাসের শুরুতে চমেক হাসপাতালে রোগী ও তাদের স্বজনরা আন্দোলনে নামেন। কয়েকদিন ধরে চলা এই আন্দোলনের অংশ হিসেবে ১০ জানুয়ারি বিক্ষোভকারীরা চমেকের প্রধান ফটকের সামনের সড়ক অবরোধ করেন। পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে আন্দোলনকারীদের সড়ক ছেড়ে দিতে বলে।

 আন্দোলনকারীরা সড়ক না ছাড়ার ঘোষণা দেন। বাগবিতণ্ডার একপর্যায়ে পাঁচলাইশ থানার ওসি নাজিম উদ্দিন উত্তেজিত হয়ে পড়েন। তিনি নিজের মুঠোফোন বের করে বিক্ষোভকারীদের ভিডিও করেন এবং তাদের পরে দেখে নেবেন বলে হুঁশিয়ারি দেন। এরপর একযোগে সবাই ওসির বিরুদ্ধে হইচই শুরু করেন এবং ভিডিও ডিলিট করার দাবি জানান।