ঢাকা, শুক্রবার, ০৩ ফেব্রুয়ারি ২০২৩, ২০ মাঘ ১৪২৯

রবিবার থেকে বাড়বে দেশের তাপমাত্রা

সরোবর প্রতিবেদক

 প্রকাশিত: জানুয়ারী ১৮, ২০২৩, ০৯:১১ রাত  

মাঘের চতুর্থ দিন চলছে। পাল্লা দিয়ে দাপট বাড়ছে শীতের। তবে এই অবস্থা কেটে গিয়ে আগামী সপ্তাহেই বাড়তে থাকবে তাপমাত্রা। আর তা ক্রমান্বয়ে বাড়তে পারে। বুধবার আবহাওয়াবিদ মো. ওমর ফারুক বিষয়টি জানিয়েছেন।  

তিনি বলেন, বর্তমানে ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াসের ঘরে নেমে এসেছে তাপমাত্রা। মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের শৈত্যপ্রবাহের সঙ্গে রয়েছে উত্তরের হিমেল বাতাস। ফলে শীতের অনুভূতি বেড়েছে। আর আর এটি বজায় থাকবে আগামী ২১ জানুয়ারি পর্যন্ত। এরপর থেকে তাপমাত্রা ক্রমে বাড়বে।

তিনি আরো জানান, চলতি বছর শুরুই হয়েছিল তীব্র ঠান্ডার মধ্য দিয়ে। জানুয়ারির প্রথম ভাগে দিনের তাপমাত্রা কমে গিয়েছিল। ঘন কুয়াশা সারাদিনেও না কাটায় আসেনি সূর্যের আলো। ফলে শীতের অনুভূতি তীব্র হয়েছিল। তবে মাঘ মাসে এমনটি হওয়ার শঙ্কা কম। দু-একটি শৈত্যপ্রবাহ হতে পারে।

এক পূর্বাভাসে আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে, উপমহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ পশ্চিমবঙ্গ ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থান করছে। মৌসুমের স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। এর বর্ধিতাংশ বিস্তৃত রয়েছে উত্তর-পূর্ব বঙ্গোপসাগর পর্যন্ত।

এই অবস্থায় বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত অস্থায়ীভাবে আংশিক মেঘলা আকাশসহ সারাদেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে হতে পারে। মধ্যরাত থেকে সকাল পর্যন্ত দেশের নদী অববাহিকায় মাঝারি থেকে ঘন কুয়াশা এবং দেশের অন্যত্র হালকা থেকে মাঝারি ধরনের কুয়াশা পড়তে পারে।

এদিকে মৌলভীবাজার জেলাসহ রংপুর, রাজশাহী ও ময়মনসিংহ বিভাগের ওপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারি ধরনের শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যেতে পারে এবং তা অব্যাহত থাকতে পারে। সারাদেশে রাত ও দিনের তাপমাত্রা প্রায় অপরিবর্তিত থাকতে পারে। ঢাকায় উত্তর অথবা উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় বাতাসের গতিবেগ থাকবে ঘণ্টায় ৮ থেকে ১২ কিলোমিটার। আগামী ৭২ ঘণ্টায় আবহাওয়ার উল্লেখযোগ্য পরিবর্তনের কোনো আভাস নেই।

বুধবার দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে তেঁতুলিয়ায় ৬ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে সন্দ্বীপে ২৯ দশমিক ৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ঢাকায় সর্বনিম্ন ও সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে যথাক্রমে ১৪ ডিগ্রি সেলসিয়াস ও ২৩ দশমিক ৮ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

দৈনিক সরোবর/এমআর